আন্তর্জাতিক

আমেরিকায় স্কুলে গোলাগুলি

আমেরিকায় স্কুলে গোলাগুলি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র: কলোরাডো স্কুলে গোলাগুলিতে এক ছাত্র নিহত, আহত সাত। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানান কলোরাডো বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি স্কুলের দুই শিক্ষার্থী  নির্বিচারে গুলি চালায়, এ সময় তারা এক সহপাঠী ছাত্রকে হত্যা করে এবং সাতজনকে আহত করে। হামলাকারীদের পরে গ্রেফতার করে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে যাওয়া হয়।

ডগলাস কাউন্টি শেরিফের অফিস বলেছে ডেনভারের প্রায় 40 কিলোমিটার দক্ষিণে হাইল্যান্ড রাঞ্চে বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল ও গণিত (এসটিইএম) স্কুল থেকে গোলাগুলির শব্দ শুনতে পায়, তখন তারা গুলিবর্ষণের ঘটনা শুনে সত্যত্যা যাচাই করতে সেখানে যায়।

ফার্নান্দো মন্টোয়া নামে একজন ব্যক্তি বলেন, তার ১৭ বছর বয়সী ছেলে তিনটি গুলি করা করা হয় এবং এতে তার একজন বন্ধুও আহত হয়। তিনি বলেন, তার ছেলে হাসপাতাল থেকে পরে মুক্তি পেয়ে বলেন, একজন আক্রমণকারী গুলি করতে করতে শ্রেণীকক্ষে প্রবেশ করেন এবং অন্যিএকজন হামলাকারী শ্রেণীকক্ষেই ছিলেন। তিনি বলেন এক ব্যাক্তি গিটারের একটি কেস থেকে পিস্তল বের করে গুলি শুরু করেন।

শেরিফ টনি স্পারলক সাংবাদিকদের বলেন, আটজন শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তিনি বলেন সাত জনের অবস্থা গুরুতর। স্পারলক বলেন ১৮ বছর বয়সী আহত একজন কিছুক্ষণ পর মারা যান। কর্তৃপক্ষ মৃত্যু ছাত্রের নাম প্রকাশ করেননি। শেরিফ বলেন, হামলাকারী ২জনই স্কুলের ছাত্র, এদের মধ্যে একজন প্রাপ্ত বয়স্ক এবং অন্যজন এর বয়স ১৮ বছরের নিচে।

কর্তৃপক্ষ জানায়, ক্যাম্পাসের মাঝামাঝি সময় গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে যখন প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ-মাধ্যমিক ছাত্ররা একত্রিত হয়। টনি স্পারলক বলেন ‍‍‍”দুইজন আলাদাভাবে STEM স্কুলে প্রবেশ করে ভিতরে চলে যান।“

STEM স্কুল থেকে ৮ কি.মি দূরে অবস্থিত কলম্বান হাইস্কুল হত্যার ২০তম পূর্তি অনুষ্ঠানের এক মাস এর মধ্যে এই গুলির ঘটনা ঘটল। ১৯৯৯ সালে ২জন কলম্বিয়ান ছাত্র ১৩জন ছাত্রকে হত্যা করে আত্মহত্যা করেছিলেন যা আমেরিকার ইতিহাসে স্কুলে প্রাণঘাতী হামলার মধ্যে অন্যতম।

মঙ্গলবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী প্রাথমিকভাবে তৃতীয় সন্দেহভাজন ব্যক্তির সন্ধানে STEM স্কুলে অনুসন্ধান করে, তবে পুলিশ পরে সিদ্ধান্ত নেয় যে হেফাজতে থাকা দুইজনই কাজ করেছে। ডেনভার টেলিভিশন ষ্টেশন KUSA-TV প্রকাশিত খবরে দেখা যায় স্কুলের বাইরে হামলার পরে একজন ছাত্র বলেন, “একটু ভীত” এবং সন্ত্রস্ত ছিলাম কিন্তু আঘাত পাইনি এজন্য খুশী।

কলোরাডো গভর্নর জেরেড পলিস বলেন, তিনি অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে অতিরিক্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী পাঠিয়েছেন। তিনি টুইটে বলেন, “আমরা আমাদের সবকিছু দিয়ে আমাদের জনগণকে নিরাপত্তার ব্যবস্থা ও ছাত্রদের হামলার স্থান থেকে নিরাপদে সরিয়ে নিয়েছি।‍’’ শেরিফ ডিপার্টমেন্ট অভিভাবকদেরকে তাদের সন্তানদের বাছাই করার জন্য নিকটবর্তী বিনোদন কেন্দ্র যেতে বলেছেন।

স্থানীয় টেলিভিশন দেখা যায় প্রায় এক ডজন পুলিশ এবং ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি স্কুলটিকে ঘিরে রেখেছে এবং পুলিশ রুমে রুমে তল্লাশি চালায়। ডেনভার পোষ্ট জানায় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস এই খবর জানার পর স্থানীয় সকল স্কুল বন্ধ করে দেয়। কলোরাডোতেই যুক্ত রাষ্ট্রের সবচেয়ে বেশী গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। ২০১২ তে একটি সিনেমা হলে একজন গুলি চালিয়ে ১২জনকে হত্যা করে এবং এতে বহু আহত হয়।

উত্তর ক্যারোলিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শার্লট ক্যাম্পাসে ২২ বছর বয়সী এক বন্দুকধারীর গুলিতে দুই জনের মৃত্যু ও চার জন আহত হওয়ার পরে বন্দুকধারী গ্রেফতার হওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যে কলোরাডোতে রক্তপাতের এই ঘটনা ঘটে।

হোয়াইট হাউস মুখপাত্র জুড ডয়োর এক শোক বার্তায় বলেন, “আজকের আক্রমণের ঘটনায় আক্রান্তদের, তাদের পরিবার ও অক্রমনের শিকার সকলের জন্য আমাদের প্রার্থনা”। “প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হোয়াইট হাউস স্টেটের প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করছেনে এবং বর্তমান পরিস্তিতি সার্বক্ষনিক পর্যবেক্ষন করছেন।

Leave a Comment